• চুল পড়া বন্ধে থানকুনি পাতা
একুশে নিউজ,18 August 2017 4:53 pm
Logo

প্রচ্ছদ »  ঝালকাঠির নলছিটিতে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে আ.লীগ নেতাকে

একুশে নিউজ| আপডেট: 2:40 July 8, 2017

ঝালকাঠির নলছিটিতে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে আ.লীগ নেতাকে

ঝালকাঠির নলছিটিতে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে আ.লীগ নেতাকে

নলছিটির সুবিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা রাসেল মোল্লাকে (৩৫) কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার সুবিদপুর এলাকার গোদন্ডা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় গুরুতর আহত রাসেল মোল্লাকে বরিশালের শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রাসেল মোল্লা সুবিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক এবং ওই ইউনিয়নের গোদন্ডা গ্রামে মৃত মজিবর রহমান মোল্লার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সুবিদপুর ইউনিয়নের গোদন্ডা গ্রামের লক্ষ্মী মিস্ত্রির বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় একটি মাছের ঘের তৈরিকে কেন্দ্র করে ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা রহিম হাওলাদারের সঙ্গে রাসেল মোল্লার দ্বন্দ্ব চলছিল।

এর জের ধরে শনিবার দুপুরে রাসেল মোল্লাকে ওই ঘেরের পাশে একা পেয়ে রহিমের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাসেল মোল্লার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় রাসেলকে শেবাচিম হাসপাতালে নেয়া হয়।

রাসেলের ভাই রাকিব মোল্লা ও প্রত্যক্ষদর্শী গোদন্ডা এলাকার আলামিন হোসেন জানান, রহিম হাওলাদারের ঘেরের পাশে রাসেল মোল্লার জমি রয়েছে। রহিম দীর্ঘদিন ধরে ওই জমি লিজ নিতে চাইলে রাসেল তাতে অস্বীকৃতি জানায়।

এর জের ধরে শনিবার দুপুরে তাকে একা পেয়ে রহিম হাওলাদারের ভাই ছাত্রলীগ নেতা রহমান হাওলাদার ও রহিমের জামাই বাপ্পি সর্দারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী রাসেলকে লোহার পাইপ দিয়ে পিটিয়ে এবং ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। রাসেলের হাতে ও পায়ে একাধিক কোপের দাগ রয়েছে। খবর পেয়ে নলছিটি থানা পুলিশের এসআই জসিম ঘটনাস্থলে এসেছিলেন।

অপরদিকে রহিম হাওলাদার রাসেলকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, গোদন্ডা এলাকায় মাটি কেটে মাছের ঘের তৈরি করতে গেলে রাসেল মোল্লা তার কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ায় রাসেল শুক্রবার মাটিকাটার মেশিন বন্ধ করে দেয়।

শনিবার ফের মেশিন বন্ধ করতে গেলে লেবারদের সঙ্গে রাসেলের সংঘর্ষ বাধে। এতে রাজু নামে একজন লেবার আহত হলে তাকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নলছিটি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম সুলতান মাহমুদ বলেন, এ ঘটনায় কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় গ্রহণ করা হবে।